১৬ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

রোহিঙ্গারা নিরাপদে স্বেচ্ছায় দেশে ফিরে যাক।

আপডেট: জানুয়ারি ২৭, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারে চাপ দেয়ার ক্ষেত্রে ব্রিটেনের প্রশংসা করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, লাখ লাখ রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের ক্ষেত্রে মিয়ানমারকে চাপে রাখার বিষয়ে যুক্তরাজ্যের ভূমিকা ছিল ইতিবাচক। তারাও চায় রোহিঙ্গারা নিরাপদে ও স্বেচ্ছায় দেশে ফিরে যাক।

রোববার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

বিদেশে পলাতক দণ্ডিত সব খুনি ও অপরাধীদের সরকার দেশে ফিরিয়ে আনতে চায় বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। পাশাপাশি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনার বিষয়ে আইন মন্ত্রণালয় কাজ করছে বলেও তিনি জানান।

এর আগে ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার অ্যালিসন ব্লেক পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠক করেন।

একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলায় যাবজ্জীবন দণ্ডিত তারেক রহমান লন্ডনে অবস্থান করছেন।তাকে দেশে ফিরিয়ে আনার বিষয়ে বহুদিন ধরে আলোচনা চলছে।

ব্রিটিশ হাইকমিশনারের সেঙ্গ বৈঠকের পর পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নেতা তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনার বিষয়ে আইন-মন্ত্রণালয় কাজ করছে। এছাড়া বিদেশে থাকা পলাতক সব খুনি ও দণ্ডিতদের দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জার্মান সফরের বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সফরের বিষয়ে আলোচনা চলছে। সেখানে গেলে দেশটির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেলের সঙ্গে সাইড লাইনে বৈঠক হতে পারে।

আসন্ন ভারত সফর আব্দুল মোমেন বলেন, ভারতের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক বরাবরেই ভালো। এই সফর হবে সৌহার্দ্যপূর্ণ ও সম্প্রীতির। সেখানে আলোচনার বিষয় এখনও চূড়ান্ত হয়নি।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
আমাদের চ্যানেল ৩৬৫ ফেসবুক লাইক পেজ