২রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

বগুড়ায় বিএনপি-জামায়াতের ২৬ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেপ্তার ২

আপডেট: জানুয়ারি ২৯, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বগুড়ার শেরপুরে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট কেন্দ্রে হামলা ও প্রিজাইডিং কর্মকর্তাকে মারপিট ও হত্যা চেষ্টায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। সোমবার (২৮ জানুয়ারি) রাতে হামলার শিকার ওই প্রিজাইডিং কর্মকর্তা ও উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা কে এম ওবায়দুল হক বাদি হয়ে এই মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় বিএনপি-জামায়াতের ২৬ জন নেতাকর্মীর নাম উল্লেখসহ আরও অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।

এদিকে মামলা দায়েরের পর আসামিদের ধরতে মাঠে নামে পুলিশ। এ সময় বিএনপির দুই কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, উপজেলার খামারকান্দি ইউনিয়নের ঘোড়দৌড় গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে মো. শাহাদত হোসেন (৩৪) ও একই গ্রামের করমত আলীর ছেলে আব্দুল মজিদ (৪৫)।

মামলার অভিযোগে জানা যায়, গত ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে একটি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ চলাকালে স্থানীয় বিএনপি-জামায়াতের সশস্ত্র নেতাকর্মীরা কেন্দ্র দখলে নিতে হামলা চালায়। তারা ধানের শীষ মার্কায় জাল ভোট দেওয়ার জন্য বেশকিছু ব্যালট পেপার দাবি করেন। কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা ও উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা কেএম ওবায়দুল হক বাধা দিলে ক্ষিপ্ত হয়ে বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীরা ওই কর্মকর্তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে বেধড়ক মারপিট করেন। পরে তাকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ সময় দেড় থেকে দুই ঘণ্টা ভোট গ্রহণ বন্ধ থাকলেও পরবর্তীতে সহকারি প্রিজাইডিং কর্মকর্তার দায়িত্বে ভোট গ্রহণ করা হয়।

এ প্রসঙ্গে শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) বুলবুল ইসলাম জানান, ‘ওই কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ চলাকালে সরকারি কাজে বাধা প্রদান ও ভোটকেন্দ্রে হামলা এবং প্রিজাইডিং অফিসারকে মারপিটসহ হত্যা চেষ্টার ঘটনায় মামলা নেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় দুইজনকে গ্রেফতার করে মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মামলার অন্য আসামিদের ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।’

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
আমাদের চ্যানেল ৩৬৫ ফেসবুক লাইক পেজ