৬ই ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: ভান্ডারিয়ায় মিরাজ নৌকা, মশিউর-আসমা বাই সাইকেল

আপডেট: মার্চ ২, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

ভান্ডারিয়া প্রতিনিধি:
আসন্ন ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পিরোজপুরের ভা-ারিয়ায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ ও জাতীয়পার্টি জেপির যৌথ সমর্থন পেলেন বর্তমান উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মিরাজুল ইসলাম মিরাজ। ভাইস চেয়ারম্যান পুরুষ-মহিলা এ দুটি পদে জাতীয় পার্টি জেপির একক সমর্থীত প্রার্থী দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন। খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, নৌকা পেতে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিরাজুল ইসলামকে নির্বাচনী হাওয়া বইতে শুরুর করার পূর্বেই আওয়ামী লীগ ও জাতীয়পার্টি জেপির পক্ষ থেকে পরোক্ষ সমর্থন দেয়া হয়েছে। আর সেটি প্রত্যক্ষ হল গেল কয়েকদিন পূর্বেই। যদিও আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতিক নৌকা পেতে মিরাজুল ইসলাম ছাড়াও প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা ও ভা-ারিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার খান এনায়েত করিম এ দুই জন ই কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের জন্য নানা ভাবে তৎবির তালাপিতে পিছিয়ে ছিলনা কেউই।

 

প্রতিক্ষার প্রহর গোনার শেষ মাহেন্দ্রক্ষণ ছিল শুক্রবার রাতে (১লা মার্চ)। রাতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধান মন্ত্রী সেখ হাসিনা তাঁর চুলচেড়া বিশ্লেষণের পর শুক্রবার রাতে ই আনুষ্ঠানিক ভাবে যে ১২২উপজেলায় আওয়ামী লীগ সর্মর্থীত প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেণ তাতে পিরোজপুরের ভা-ারিয়ায় নৌকা প্রতিক পান মিরাজুল ইসলাম মিরাজ বলে সেল ফোনে জানান খান এনায়েত করিম।

এদিকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে পুরুষ-মহিলা উভয় পদের জন্য জেপির বাই সাইকেল প্রতিকের জন্য একাধিক প্রার্থীর প্রত্যাশার ও অবসান ঘটে গত বুধবার। জেপি চেয়ারম্যান এ দুই পদের জন্য মহিলা পদে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান আসমা আখতারকে এবং পুরুষ প্রার্থী পদে জেপির উপজেলা যুগ্ন আহবায়ক ও সাবেক ভিটাবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান মশ্উির রহমান মৃধাকে দলীয় সমর্থন দেন।

এদিকে দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার পূর্বে মাঠ,ঘাট ,চায়ের দোকান,হোটেল রেস্টুটেন্ট ফাঁগুনের আগুন থাকার কথা কিন্তুু প্রকৃতির অশোভনীয় আচরনে বৃষ্টি,আর শীতের প্রভাবের মাঝে রাজনৈতিক মাঠ ছিল উত্তপ্ত। দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার পরে ফাঁগুনের তীব্রতা অনুভব হলেও রাজনৈতিক মাঠ শীতল। তবে এখন জল্পনা ,কল্পনা চলছে এই তিন দাপুটে প্রার্থীর সামনে অন্য কেউ প্রার্থী না হলে এরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে পারে বলেও চলছে বর্তমান প্যাচাল। কারন গত উপজেলা পরিষদ (৪র্থ) নির্বাচনে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। বাকী চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দিতায় চেয়ারম্যান পদে আতিকুল ইসলাম উজ্জল তালুকদার জাতীয়পার্টি জেপির সমর্থনে বিপুল ভোটে এবং আসমা আখতার স্বতন্ত্র পার্থী পদে বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হন। তাই আসন্ন ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চতুর্থ ধাপে অনুষ্ঠেয় ১২২ উপজেলা তার মধ্যে ভা-ারিয়া উপজেলা রয়েছে।

আর এতে আগামী ৪মার্চ মনোনয়ন পত্র দাখিল,৬মার্চ জাচাই বাছাই এবং ১৩ই মার্চ প্রত্যাহারের শেষ দিন এবং ৩১শে মার্চ অনুষ্ঠিত হবে ভোট গ্রহন। সে জন্য ১৩ মার্চ ই চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত বোঝা যাবে যে ৩১ মার্চ ১২২ উপজেলার অন্য সব উপজেলায় ভোট গ্রহন হলেও এ উপজেলায় বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় তিন প্রার্থীই বিজয়ী হতে পারে এমন মন্তব্যও অনেক স্থানে বিভিন্ন শ্রেণি পোশার মানুষের মাঝে এখন প্রধান আলোচনা। কারন এই তিন কর্মঠ তরুন নেতৃত্ব যে ভাবে স্ব স্ব অবস্থানে কাজ করে আসছে তাতে সেটা ধরে নেয়া যায়। ৪মার্চ ই বোঝা যাবে অনেকটা চুড়ান্ত ভাবে আমজনতার ভোটের আলোচনার ঝড় ১৩মার্চ কমবে। সামগ্রীক ভাবে অতীত,বর্তমান এবং ভবিষ্যৎ প্যাচাল চলমান থাকবে বলেও প্রবীণদের আলাপচারিতায় বোঝা যায়। আর সে জন্য কিছু প্যাচালের সমাধান ১৩ই মার্চ আর কিছু প্যাচালের চলমান অপেক্ষা।

অন্যদিকে শুক্রবার রাতে নৌকার দলীয় মনোনয়ন মিরাজের পক্ষে আসায় ওই রাতেই তার সমর্থীত নেতা-কর্মীরা ভা-ারিয়া বাজারে তাৎক্ষনিক মিছিলে মিছিলে মুখরিত করে তুলেছে। কোথাও কোথাও সর্মথকদের বীজয়ের বহি:প্রকাশ হিসেবে ছোট খাট আতোশ বাজির শব্ধও শোনা গেছে। সব মিলে মিরাজের পক্ষে চলছে অপ্রতিরোধ্য গণজোয়ারের শ্রোত। বৈরী আবহাওয়ার চালাকি আর যাই হোক না কেন এ তিন প্রার্থীই আনোয়ার হোসেন মঞ্জু(এম.পি) সমর্থীত। তবে তার মধ্যে চেয়ারম্যান প্রার্থী মিরাজের পক্ষে ডবল সমর্থন।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
আমাদের চ্যানেল ৩৬৫ ফেসবুক লাইক পেজ