২২শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং, মঙ্গলবার

অতিরিক্ত ঠাণ্ডা পানি পানে ঘটতে পারে বড় বিপদ

আপডেট: মে ১০, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

চলছে পবিত্র মাহে রমজান। তার ওপরে অসহ্য গরম। গরমে অতিষ্ঠ মানুষ। গরমে ঘরে-বাইরে হাঁসফাঁস অবস্থা। অতিরিক্ত গরমে ঠাণ্ডা পানি খাওয়ার চাহিদা থাকে বেশিরভাগ মানুষের। ঘরে ফিরেই ফ্রিজ খুলে ঠাণ্ডা পানি বের করে পান করেন।

আর রমজানে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে শরবত বানানো থেকে শুরু করে খেয়েও থাকি আমরা। এছাড়া শীত ছাড়া গরমে সারা বছর ঠাণ্ডা পানি পান করে থাকেন অনেকে। তবে আপনি জানেন কি? এই ঠাণ্ডা পানি পান করার অভ্যাস ডেকে আনতে পারে ভয়াবহ বিপদ।

আসুন জেনে মাত্রাতিরিক্ত ঠাণ্ডা পানি পান করলে যেসব ভয়াবহ বিপদ হতে পারে।

শ্বাসনালীতে সমস্যা

বিশেষজ্ঞদের মতে, খাওয়ার পরে ঠাণ্ডা পানি পান করা ঠিক নয়। ঠাণ্ডা পানি শ্বাসনালীতে অতিরিক্ত পরিমাণে শ্লেষ্মার আস্তরণ তৈরি হয়, যা থেকে সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে যায়।

রক্তনালী সংকুচিত

প্রতিনিয়ত মাত্রাতিরিক্ত ঠাণ্ডা পানি পান করলে রক্তনালী সংকুচিত হয়ে পড়ে ও স্বাভাবিক পরিপাক ক্রিয়াও বাধাপ্রাপ্ত হয়। ফলে হজমের মারাত্মক সমস্যা হতে পারে।

হজম সমস্যা

বিশেষজ্ঞদের মতে, ওয়ার্কআউটের পর ঠাণ্ডা পানির পরিবর্তে কুসুম গরম পানি পান করলে বেশি উপকার পাওয়া যাবে।

বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর ও শরীরচর্চা করার পর ঠাণ্ডা পানি একেবারেই পান করা যাবে না। কারণ ঘণ্টাখানেক শরীরচর্চা করার পর শরীরের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে অনেকটা বেড়ে যায়। এ সময় ঠাণ্ডা পানি পান করলে হজমের নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে।

ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে দাঁতে

ঠাণ্ডা পানি পান করলে ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে দাঁত। দন্ত চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞদের মতে, অতিরিক্ত ঠাণ্ডা পানি পান করলে দাঁতের ভেগাস স্নায়ুর ওপর ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে। ফলে আমাদের হৃদযন্ত্রের গতি অনেকটা কমে যেতে পারে।

তাই ঠাণ্ডা পানি পানের অভ্যাস থাকলে ত্যাগ করুন।

সূত্র: জিনিউজ

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন