২০শে জুলাই, ২০১৯ ইং, শনিবার

খালেদা জিয়ার মামলাগুলোর বিচারে কেরানীগঞ্জের কারাগারে আদালত বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার

আপডেট: মে ১৩, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মামলাগুলোর বিচারে কেরানীগঞ্জের কারাগারে আদালত বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

রোববার এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে আইন মন্ত্রানালয়। এতে বলা হয়, নিরাপত্তা সংক্রান্ত কারণে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

তবে সরকারের এমন সিদ্ধান্তের মধ্য দিয়ে খালেদা জিয়াকে ওই কারাগারে স্থানান্তরের ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দিলেই তাকে কেরানীগঞ্জ কারাগারে নেয়া হবে বলে জানিয়েছে কারা কর্তৃপক্ষ।

এদিকে সরকারের এমন সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে বিএনপি নেতা ও খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। তারা জানান, আদালত কারাগার থেকে কারাগারে ঘুরে বেড়াচ্ছে। এতে ন্যায় বিচার পাওয়া যাবে না।

দুর্নীতির দুই মামলায় দণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন এখন চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে রয়েছেন। গত বছর ৮ ফ্রেব্রুয়ারি থেকে পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন সড়কের পুরনো কারাগারে বন্দি থাকার পর গত ১ এপ্রিল চিকিৎসার জন্য তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।

এতদিন নাজিমউদ্দিন সড়কের কারাগারের পাশে স্থাপিত আদালতে আদালত বসিয়ে খালেদা জিয়ার বেশ কয়েকটি মামলার বিচার চলছিল। এখন সেগুলো কেরানীগঞ্জের নতুন কারাগারে যাবে।

রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে আইন মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম-সচিব (প্রশাসন-১) মো গোলাম সারওয়ার সাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ‘বিশেষ আদালত নং-৯, ঢাকা এ বিচারাধীন বিশেষ মামলা নং ১৬/০৮,যাহা তেজগাঁও থানার মামলা নং ২০ (১২) ০৭ এর বিচার কার্যক্রম ঢাকা মহানগরের ১২৫, নাজিমউদ্দিন রোডে অবস্থিত পুরাতন ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রশাসনিক ভবনের কক্ষ নং ৭ এর অস্থায়ী আদালতে পরিচালিত হইতেছে। নিরাপত্তাজনিত কারণে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে সরকার বিশেষ জজ আদালত ০৯, ঢাকা এ বিচারাধীন বিশেষ মামলা নং ১৬/০৮ এর বিচার কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য কেন্দ্রীয় কারাগার, কেরানীগঞ্জ, ঢাকা এর সম্মুখে নবনির্মিত ২ নং ভবনকে অস্থায়ী আদালত হিসেবে ঘোষণা করিল এবং এতদ্বারা নির্দেশ প্রদান করিল যে, বিশেষ জজ আদালত নং-৯, ঢাকা এ বিচারাধীন বিশেষ মামলা এর বিচার কার্যক্রম কেন্দ্রীয় কারাগার, কেরানীগঞ্জ, ঢাকা এর সম্মুখে নবনির্মিত ২ নং ভবনের অস্থায়ী আদালতে অনুষ্ঠিত হবে।’

এ প্রসঙ্গে দুর্নীতি দমন কমিশনের কৌঁসুলি মোশাররফ হোসেন কাজল বলেন, কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে নবনির্মিত ২ নম্বর ভবনের অস্থায়ী আদালতে নাইকো দুর্নীতি মামলাসহ অন্য মামলাগুলোর বিচার হবে।

নিরাপত্তার স্বার্থে কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে নবনির্মিত ২ নম্বর ভবনের অস্থায়ী আদালতে মামলাগুলোর বিচারিক কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে।

নাইকো দুর্নীতি মামলা ছাড়াও রাজধানীর দারুস সালাম থানার নাশকতার ৮ মামলা, যাত্রাবাড়ী এলাকায় বাসে অগ্নিকাণ্ডের মামলা এবং মানহানির অভিযোগে করা তিনটি মামলার বিচারে ঢাকার জজ আদালতের একটি এজলাস বসবে কেরানীগঞ্জের কারাগারে। এগুলো ছাড়া আরও কয়েকটি মামলার বিচারও ওই আদালতে হবে বলে জানান তিনি।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন