১৮ই জুন, ২০১৯ ইং, মঙ্গলবার

ইন্দুরকানীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে বসতঘরে হামলা, লুটের অভিযোগ ও গৃহবধূ আহত

আপডেট: মে ১৮, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

রবিউল হাসান মনির, পিরোজপুর প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বসতবাড়িতে হামলা ও লুটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
শনিবার (১৮মে)সকালে উপজেলার উত্তর ভবানিপুর গ্রামের আবু তালেব তালুকদারের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এতে আবু তালেবের স্ত্রী রোজিনা বেগম (৩০) নামে এক গৃহবধূ আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহত ঐ গৃহবধূকে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছে।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, বসতবাড়ির ১৮ শতাংশ জমি নিয়ে আবু তালেব তালুকদারের সাথে তার চাচাতো ভাই মাসুম তালুকদারের পরিবারের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। শনিবার সকালে বিরোধ পূর্ণ ঐ বাড়ির বাগান থেকে মাসুমের স্ত্রী মাসুদা বেগম জ্বালানী কাঠ কুড়াতে গেলে আবু তালেবের স্ত্রী তাতে বাধা দেন। এ নিয়ে কথার কাটাকাটি হলে
উভয় পরিবারের মধ্যে ঝগড়া বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে মাসুদা বেগম, জুয়েল, তৌহিদ, মেহেদী লাকি বেগম সহ ১০/১২ জন রোজিনা বেগমের বাড়িতে হামলা শুরু করলে তিনি তাদের বাধা প্রদান করে। পরে ঘরে ঢুকে তাকে মারধর করা হয় মালামাল তছনছ করে নগদ অর্থ এবং স্বর্নালংকার লুট করে নিয়ে যান বলে আহত রোজিনা বেগম সাংবাদিকদের অভিযোগ করেন।
রোজিনা বেগম জানান, এর আগে গত মাসের ৬ এপ্রিল আমার স্বামী আমি সহ ৫ জনকে কুপিয়ে জখম করে মাসুমের পরিবারের লোকজন। তারই আবারও আমার বসত ঘরে হামলা করেছে।
এদিকে উক্ত অভিযোগ অস্বীকার করে মাসুদা বেগম এবং লাকি বেগম জানান, শনিবার সকালে আমাদের নিজেদের বসত বাড়ির বাগানের জ্বালানী কাঠ কুঁড়িয়ে নিয়ে আসার সময় রোজিনা গালমন্দ শুরু করেন। পরে এ নিয়ে খালের দুই প্রান্তে উভয় পক্ষের মধ্যে বেশ কিছুক্ষণ ধরে শুধু কথার কাটাকাটি হয়। এখানে বাড়িঘরে কোন হামলার ঘটনাই ঘটেনি। আমাদের ফাঁসাতে রোজিনা ও বেবি বেগম সহ আরো কয়েক জন মহিলা মিলে ঘরের মালামাল তছনছ ও আহত হওয়ার ঘটনা সাজিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়।
এ ব্যাপারে ইন্দুরকানী থানার ওসি মোঃ হাবিবুর রহমান জানান, আমি খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছি। তবে এখন পর্যন্ত থানায় কোন লিখিত অভিযোগ পওয়া যায়নি।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন