২৫শে আগস্ট, ২০১৯ ইং, সোমবার

কলাপাড়ায় মোটরসাইকেল চালককে কুপিয়ে জখম।। ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা

আপডেট: আগস্ট ১০, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

তানজিল জামান জয়,কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি, ১০ আগষ্ট।। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কলাপাড়ার লালুয়া ইউনিয়নের রহিমউদ্দিন স্কুলের সামনে শাওন প্যাদা নামের এক ভাড়াটে মোটর চালকে কুপিয়ে ও মারধর কওে রক্তাক্ত জখম করেছে নাঈম মাঝির নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী। এঘটনায় শাওনের ভাই মো: সফিকুল ইসলাম রাজিব বাদি হয়ে গত ৫ আগষ্ট মো: নাঈম মাঝিকে প্রধান আসামী করে ৫ জনের বিরুদ্ধে কলাপাড়া থানায় একটি মামলা করেছেন। মামলার অপর আসামীরা হলেন, মো: চান মিয়া মাঝি, মো: সোহাগ মাঝি, মো: আফাজ উদ্দিন হাওলাদার, মো: শামীম মাঝি। মামলা সূত্রে জানাযায়, গত ৪ আগষ্ট শেষ বিকেলে উপজেলা লালুয়া ইউনিয়নের রহিম উদ্দিন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে হোন্ডা স্টান্ডে যাত্রীর জন্য মোটর সাইকেল চালক শাওন প্যাদা অপেক্ষা করছিল। এসময় নাঈম মাঝি স্টান্ডে এসে শাওনের কাছ থেকে জোর পূর্বক মোটর সাইকেলের চাবি ছিনাইয়া নেয়। শাওন প্রতিবাদ করিলে পূর্ব বিরোধের জের ধওে পরিকল্পিত ভাবে পথ রোধ করিয়া তাকে মারধর ও কুপিয়ে জখম করে। এসময় শাওনের পকেটে থাকা গরু কেনার জন্য ৫৫ হাজার টাকা ছিনাইয়অ নেয়। এবং মোটর সাইকেলটি ভাংচুর করে। এসময় শাওনের ডাকচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে আসামীরা এই বিষয় মামলা করিলে শাওন ও তার ভাই সফিকুলকে খুন করিয়া লাশ গুম করিবে বলে হুমকী দিয়া চলিয়া যায়। সংবাদ পেয়ে শাওনের ভাই সফিকুল ঘটনাস্থলে এসে স্থানীয়দেও সহায়তায় শাওনকে কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করে। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজে প্রেরন করে। এব্যাপারে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কলাপাড়া থানার এসআই বিপ্লব মিস্ত্রী জানান, মামলার আসামীদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত আছে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন