২রা জুন, ২০২০ ইং, বুধবার

শিরোনাম
ঝালকাঠির কথিত তিন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে নিহত গৃহবধুর পরিবারকে হুমকি দিয়ে চাঁদা দাবির অভিযোগ বানারীপাড়ায় নির্মমনির্যাতনেরশিকার জয়িতানারী পলিহাসপাতালেকাতরাচ্ছে… বানারীপাড়ায়গাঁজাসহ দুইমাদকব্যবসায়ী আটক: একজনের এক বছরেরকারাদন্ড ভার্চ্যুয়াল কোর্ট নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট-মন্তব্যের ক্ষেত্রে সতর্ক করলেন হাইকোর্ট বরিশাল সিএসডি অফিসের সরকারি পুকুর দখলের অভিযোগ! নিরাপত্তা প্রহরী জামালের বিরুদ্ধে এরকম দিন থাকবে না : প্রধানমন্ত্রী নাজিরপুরে হযরত মুহম্মাদ (স:) ও ইসলাম নিয়ে ফেসবুুকে কটুক্তি করায় গ্রেফতার বৃদ্ধের লুঙ্গি-গেঞ্জি ছিঁড়ে মারধর, ভিডিও ভাইরাল স্বাস্থ্যবিধি মানছে না কেউ, ঝুঁকির শঙ্কায় গোটা বরিশাল!

ঠ্যালায় পড়ে নূর হোসেনের মায়ের কাছে ক্ষমা চাইলেন রাঙ্গা

আপডেট: নভেম্বর ১২, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে শহীদ নূর হোসেনকে ‘ইয়াবাখোর’ বলার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন জাতীয় পার্টির (জাপা) মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা। তিনি বলেন, ‘নূর হোসেনকে নিয়ে অসতর্কভাবে আমার দেওয়া বক্তব্যে যে আঘাত পেয়েছেন, তার জন্য আমি তার মায়ের কাছে আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি। একইসঙ্গে যে বক্তব্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে, সেসব বক্তব্য প্রত্যাহার করে নিচ্ছি।’

মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) দুপুরে বনানীতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের কাছে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, রবিবার (১০ নভেম্বর) বনানীতে জাপার চেয়ারম্যান কার্যালয়ে ‘গণতন্ত্র দিবস’-এর এক আলোচনা সভায় রাঙ্গা বলেছিলেন, ‘হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ কাকে হত্যা করলেন? নূর হোসেনকে? কে নূর হোসেন? একটা অ্যাডিকটেড ছেলে। একটা ইয়াবাখোর, ফেনসিডিলখোর।’

মঙ্গলবার দুপুরে রাঙ্গা বলেন, ‘আমি আশা করি, এই বিষয়ে আর কোনও ভুল বোঝাবুঝির অবকাশ থাকবে না।’

তিনি বলেন, ‘গত ১০ নভেম্বর গণতন্ত্র দিবসের আলোচনা সভায় আমার কিছু বক্তব্য নিয়ে কোনও কোনও মহল এবং বিশেষ করে নূর হোসেনের পরিবারের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। প্রতিবছর নূর হোসেনের মৃত্যুবার্ষিকীর দিনে কয়েকটি সংগঠনের আলোচনা, বক্তব্য ও বিবৃতিতে জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে হেয়প্রতিপন্ন করা হয়। এমনকি তাকে অশ্রাব্য ভাষায় গালাগালিও করা হয়। এর ফলে জাতীয় পার্টির কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এবারও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। সেই পরিপ্রেক্ষিতে কর্মীদের উত্তেজনার মধ্যে বক্তব্য প্রদানকালে অনিচ্ছাকৃতভাবে আমার মুখ থেকে নূর হোসেন সম্পর্কে কিছু অযাচিত কথা বেরিয়ে গেছে, যা তার পরিবারের সদস্যদের মনে আঘাত করেছে। এর জন্য আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত ও অনুতপ্ত।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন