১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং, সোমবার

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন নতুন আইন বিষয়ে মালিক-শ্রমিকদের নিয়ে বগুড়ায় মতবিনিময় সভা

আপডেট: নভেম্বর ১২, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টারঃবাংলাদেশ সড়ক পরিবহন নতুন আইন বিষয়ে মালিক-শ্রমিকদের নিয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বগুড়া জেলা সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আয়োজনে শহরের চকসুত্রাপুরে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি সামছুদ্দিন শেখ হেলাল। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মতিন সরকার এর সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন জেলা মোটর মালিক গ্র“পের সভাপতি শাহ্ আকতারুজ্জামান ডিউক, জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি আব্দুল মান্নান আকন্দ, মোটর মালিক গ্র“পের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সফিকুল ইসলাম, জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুল লতিফ মন্ডল, আন্ত:জেলা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি আব্দুল মান্নান মন্ডল, সা: সম্পাদক খলিলুর রহমান, পশ্চিম বগুড়া সিএনজি মালিক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম, সা: সম্পাদক এরশাদ শেখ, পিকআপ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন বুলবুল প্রমুখ।এতে বক্তারা নতুন সড়ক পরিবহন আইনকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, আইনটির কয়েকটি ধারা সংশোধন করা প্রয়োজন। এই আইনের জামিন অযোগ্য ধারা পরিবহন চালক সঙ্কট বাড়িয়ে তুলবে। এ আইন মেনে চলতে আমরা পরিবহন মালিক- শ্রমিকদের আহ্বান জানাব। পাশাপাশি এ আইনের অনেকগুলো ধারা আছে, যেন সংশোধন করা হয়। বর্তমানে চালকের সঙ্কট রয়েছে। জামিন অযোগ্য যদি হয়, দুর্ঘটনা ঘটলেই চালক যদি জেলখানায় চলে যায়। যদি জামিন না হয়, তাহলে চালকের সঙ্কট আরও বাড়তে থাকবে। গাড়ির মালিকের সব কাগজপত্র এবং চালকের লাইসেন্স ঠিক থাকার পরও কোনো কোনো ক্ষেত্রে দুর্ঘটনার জন্য মালিকদের বড় অঙ্কের জরিমানা করা হয়। এ ধরনের সিদ্ধান্তের ফলে পরিবহন খাত অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হবে। সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ বাস্তবায়ন করতে গিয়ে মালিক শ্রমিকরা যেন অকারণে হয়রানির শিকার না হয়, সেদিকে সবাইকে লক্ষ্য রাখতে হবে। যততত্র যানবাহন থামিয়ে জরিমানা আদায় থেকে বিরত থাকা সহ জরিমানার ক্ষেত্রে একজন পদস্থ্য কর্মকর্তা যেমন, নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট বা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদমর্যাদার কর্মকর্তা নিয়োগ দেয়ার আহবান জানানো হয়। পরিবহন আইন সংশোধন না হলে মালিক-শ্রমিকরা পেশা পরিবর্তন করতে বাধ্য হবে বলে জানান।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন