২২শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং, বুধবার

অধিদপ্তরের নীতিমালাকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে মেডিকেলে ফিরছেন স্টাফ নার্স

আপডেট: জানুয়ারি ১৬, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তরের নীতিমালাকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে শাস্তিমূলক বদলী হওয়ার তিন বছর পর শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বদলী হয়ে এসেছেন সিনিয়র স্টাফ নার্স ফরিদুন্নেছা। তাকে ২০১৭ সালের জুলাই মাসে শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে নোয়াখালীর হাতিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শাস্তিমূলক বদলি করা হয়। তার সাথে আরো দু’জনকে শাস্তিমূলক বদলি করা হয়েছিল। শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রশাসনিক দপ্তর সূত্র থেকে জানা গেছে, কর্মস্থলে ৩০ বছর থাকার পর শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কর্মরত স্বাধীনতা নার্সেস পরিষদ (স্বানাপ) বিভাগীয় সভাপতি সিনিয়র স্টাফ নার্স ফরিদুন নেছাকে নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে, বিভাগীয় সাধারণ সম্পাদক সিনিয়র স্টাফ নার্স সাহাবুদ্দিনকে কক্সবাজারের সেন্টমার্টিন ১০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে এবং বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক স্টাফ নার্স আব্দুল কাদের খানকে চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়। তাদের বদলিতে স্বস্তি ফিরে আসে মেডিকেলে। অভিযোগ ছিল গত ৩০ বছর ধরে স্ট্যান্ড রিলিজকৃত নার্সরা শেরেবাংলা মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে কর্মরত আছেন। এ কারণে মেডিকেলে তারা একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তার করেন। তাদের কারণে অন্য নার্সরা ঠিকমত কাজ করতে পারেন না। এমনকি পরিচালকের নির্দেশও তারা মানেন না। তৎকালীন পরিচালককে তারা হুমকি-ধামকি দেন। এমনকি কিছুদিন আন্দোলনও করেন। কিন্তু তাদের মিশন সাকসেস হয়নি। পরবর্তীতে তাদেরকে শাস্তিমূলক বদলির স্থানে যোগদান করেন। সিনিয়র স্টাফ নার্স ফরিদুন নেছা তদবির করে নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ঝালকাঠী হাসপাতালে যোগদান করেন। সম্প্রতি ঝালকাঠি হাসপাতাল থেকে ফরিদুন্নেছা শাস্তিমূলক বদলি হওয়া শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বদলি হয়েছেন। এ বছর ১২ জানুয়ারী তার বদলিতে স্বাক্ষর করেন নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক (প্রশাসন) খালেদা বেগম। এদিকে নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তর সূত্র থেকে জানা গেছে, সিনিয়র স্টাফ নার্স/স্টাফনার্স বদলী নীতিমালার ১৫ নম্বরে প্রশাসনিক কারনে বদলি করা হলে কোনক্রমেই পূর্বের কর্মস্থলে পুনর্বহাল করা যাবে না বলে এক আদেশ জারী করা হয়। ২০১৯ সালের ৩০ ডিসেম্বর ওই আদেশে স্বাক্ষর করেন নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আলম আরা বেগম। এ ব্যাপারে শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সেবাতত্ত্বাবধায়ক সেলিনা আক্তার বলেন, অধিদপ্তর থেকে জারীকৃত শাস্তিমূলক বদলি হলে সেখানে ওই ব্যক্তি যোগদান করতে পারবেন না। কিন্তু এখন যোগদানের বিষয়টি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানেন। এ ব্যাপারে কথা বলার জন্য নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক (প্রশাসন) ফিরোজা বেগমের মোবাইল নম্বরে একাধিকবার কল দেয়া হলেও তিনি তা রিসিভ করেননি।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন