২৮শে মে, ২০২০ ইং, বৃহস্পতিবার

মাওলানা সাদ করোনায় আক্রান্ত!

আপডেট: এপ্রিল ২, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজে জমায়েত করায় তাবলীগ জামাতের জ্যেষ্ঠ মাওলানা সাদ কান্ধলভির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে দিল্লি পুলিশ। এফআইআর দায়েরের পর থেকেই তাকে হন্যে হয়ে খুঁজছে পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চ। যদিও এখনো পর্যন্ত তার খোঁজ মেলেনি। এরমধ্যেই মাওলানা সাদ কান্ধলভি করোনায় আক্রান্ত হওয়া নিয়ে খবর প্রকাশিত হয়।

বুধবার মাওলানা সাদের একটি অডিও রেকর্ডিংয়ে এমনই ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। মারকাজ ইউটিউব চ্যানেলে বুধবার সাদের দুটি অডিও ক্লিপস প্রকাশ করা হয়েছে।

এর একটিতে সাদ দাবি করেন, করোনাভাইরাস তার অনুসারীদের কোনো ক্ষতি করতে পারবে না।‘মৃত্যুর জন্য মসজিদই সর্বোত্তম স্থান’ বলে মন্তব্য করেন তিনি।

পরের অডিও ক্লিপসে নিজের অবস্থান থেকে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে গেছেন বিশ্ব তাবলিগের একাংশের এই আমির। তিনি তাবলিগের সাথীদের করোনা প্রতিরোধে সরকারি নির্দেশনা মেনে চলতে এবং জনসমাবেশ এড়িয়ে চলার আহ্বান জানান

সাদ বলেন, ‘সন্দেহাতীতভাবে বিশ্বে যা ঘটছে তা মানবতার অপরাধের ফল। আমাদের বাড়িতে থাকা উচিৎ, আল্লাহর ক্রোধকে শান্ত করার এটিই একমাত্র উপায়। চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে চলা এবং সরকারের প্রশাসনের সহযোগিতা করা উচিৎ। আমাদের সাথীরা যেখানেই থাকুক না কেন তাদের প্রশাসনের নির্দেশনা মেনে চলা উচিৎ। যেখানেই থাকুন না কেন কোয়ারেন্টাইনে চলে যান, এটা ইসলাম ও শরিয়তের বিপক্ষে নয়।’

সাদ এই অডিও ক্লিপসে আরো জানান, তিনি দিল্লিতেই রয়েছেন। এক চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে এখন আইসোলেশনে রয়েছেন।

মার্চের মাঝামাঝি দিল্লির নিজামউদ্দিন মারকাজে ইজতেমার আয়োজন করেছিরেন সাদ ও তার অনুসারীরা। ওই ইজতেমায় অংশ নেওয়া ১২৮ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এদের মধ্যে সাত জনের মৃত্যু হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে অন্তত ৪০০ জন করোনা আক্রান্তের যোগসূত্র রয়েছে এই ইজতেমার সঙ্গে। সরকারি নির্দেশনা অমান্যের অভিযোগে বুধবার সাদ ও তার সাত অনুসারীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে দিল্লি পুলিশ।

২৮ মার্চ থেকে খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না মাওলানা সাদের। দিল্লি পুলিশের দল উত্তরপ্রদেশের মুজাফফরনগরেও গিয়েছে তার অনুসন্ধানে। দিল্লিতেও তার খোঁজে তল্লাশি চলছে। এছাড়া সাদ কোনো হাসপাতালে রয়েছেন কিনা জানতে ১৪টি হাসপাতালে পুলিশ যোগাযোগ করেছে।

উল্লেখ্য, ভারতের দ্রুত হারে বেড়ে চলেছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। এরই মধ্যে দিল্লির নিজামুদ্দিনে তবলীগ জামাত-এর ধর্মীয় অনুষ্ঠানে সব মিলিয়ে প্রায় ৯,০০০ মানুষের জমায়েতের বিষয়টি সামনে আসে। ওই অনুষ্ঠানে যোগ দেয়া ২১ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। মৃত্যু হয়েছে দু’জনের।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন