২৭শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

শিরোনাম
লালমোহনে ১৫ মণ জাটকা জব্দ বিশ্বের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে সাকিবের অনন্য রেকর্ড নগরীর কসাইখানায় অন্তঃসত্ত্বা দুবোনকে পিটিয়ে গর্ভের সন্তান হত্যার চেষ্টা! চরফ্যাশনে কোস্টগার্ডের অভিযানে ২৫ মণ জাটকাসহ ট্রলার জব্দ বিনয়কাঠি ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী মামুনের মোটর শোভাযাত্রা নগরীতে অগ্নিকাণ্ডে বসতঘর পুড়ে ছাই কর্মবিরতি প্রত্যাহার : যাত্রী ভোগান্তি নিরসনে নৌ বন্দরে মেয়র সাদিক খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের সাথে জেলা প্রশাসকের মতবিনিময় জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দারকে ফুলেল শুভেচ্ছা শেষে ফটোসেশন করেন ইন্দো বাংলা ফর্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এএফএম আনোয়ারুল হক সাব্বির

প্লাস্টিক দূষণ এবং পরিবেশ বিপর্যয়!

আপডেট: জানুয়ারি ১১, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

সহজলভ্য,স্বল্পমূল্য,ব্যবহার সুবিধাজনক হওয়ায় আমাদের দৈনন্দিন জীবনে প্লাস্টিক ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে গেছে কিন্তু আমরা ভাবি না আমাদের যত্রতত্র ফেলে দেওয়া ব্যবহৃত প্লাস্টিক,গাড়ির টায়ার, টেক্সটাইল কারখানা নিঃসৃত ছোট ছোট প্লাস্টিক বর্জ্য ড্রেন,খালনদী পেরিয়ে বাতাস,ভূমি,নদীকে বিষিয়ে তুলে, একসময় জঞ্জাল হিসাবে জমা হয় সাগরমহাসাগরেএর বাইরেও আছে তেলজাতীয় পদার্থ এবং জাহাজ থেকে নিক্ষিপ্ত অন্যান্য বর্জ্য (বছরে ২৫০ মিলিয়ন টন) যা পরিবেশ এবং জীব বৈচিত্রের জন্য মারাত্মক হুমকি স্বরুপআমাদের মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সিতে যে পরিমান তারা আছে তার থেকেও বেশী ১৪ মিলিয়ন টনেরও বেশী প্লাস্টিক প্রতিবছর সমুদ্রে জমা হয়বলা হয় আগামী ২০৫০ সালের মধ্যে সাগরে মাছের সংখ্যা/পরিমানের তুলনায় প্লাস্টিকের সংখ্যা ছাড়িয়ে যাবেসমুদ্রের ঢেউ এবং সূর্যের আলোর প্রভাবে প্লাস্টিক সামগ্রী এক সময় মাইক্রো প্লাস্টিকে পরিনত হয় পানি খাদ্যের সঙ্গে এই প্লাস্টিক বিভিন্ন জীবে প্রবেশ করেশেষ পর্যন্ত ফুড চেইন মাছের মাধ্যমে মানুষের শরীরে প্রবেশ করেজলজপ্রাণী এবং পাখি খাদ্য ভেবে অনেকসময় প্লাস্টিক কনা ভুল করে খেয়ে ফেলে, কখনোবা প্লাস্টিক সামগ্রী শরীরে জড়িয়ে যায়, পরিনতি করুণ মৃত্যুবৃহদাকার কচ্ছপ এবং অতিকায় তিমি এর শিকার হয় সবচেয়ে বেশীসাথে যোগ হয়েছেকভিড ওয়েস্টকরোনাকালে নতুন অভিশাপসমুদ্রে পলিউশন আরো বাড়ছে কোটি কোটি গ্লোভস, মাস্ক এখন ভাসছে সমুদ্রের পানিতে, এমনকি ১০০ ফিট পানির নীচেওদূষণ ছড়াবে ৪৫০ বছর ধরে বিভিন্ন সামুদ্রিক প্রানী খাবার ভেবে এগুলোও খাচ্ছে,আস্তে আস্তে মরে ভেসে উঠছে তারাবিশ্ব বন্যপ্রানী তহবিলের হিসাব মতে আগে বছরে ১০ লক্ষ সামুদ্রিক পাখি লক্ষ মাছ এবং জলজ উদ্ভিদ মারা যেতভাসমান মাস্ক গ্লোভসের কারনে সংখ্যা আরও বাড়বে বলে মনে করা হয়আর এজন্য দায়ী কিন্তু এই মনুষ্যকূলঅবশ্য মানুষেরও নিস্তার নাই মাছ, শাক, সব্জী,খাওয়ার মাধ্যমে শরীরে প্রবেশ করে মানব দেহের চরম স্বাস্থ্য বিপর্যয় ঘটায় এটি স্পটতই ক্যান্সার, চর্মরোগ, অন্যান্য স্বাস্থ্য সমস্যার মাধ্যম
প্লাস্টিককে অপচ্য পদার্থ হিসাবে আখ্যা দেওয়া হয় বলা হয় পৃথিবীর প্রথম উৎপাদিত প্লাস্টিক এখনও নিঃশেষ হয় নাইতাই প্লাস্টিক বর্জ্য পরিবেশে দীর্ঘস্থায়ী ক্ষতিকর প্রভাব বিস্তার করে সাধারনত উদ্ভিদকূল,জলজপ্রানী, দ্বীপ অঞ্চলের প্রাণী প্লাস্টিক বর্জের জন্য মারাত্মক ক্ষতির সম্মুখীন মানুষও প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে ক্ষতিগ্রস্থ আমাদের প্রয়োজনীয় অক্সিজেনের অধিকাংশই উৎপাদন করে সমুদ্র আর আমাদের আবহাওয়ামন্ডল থেকে ৫০ গুণ বেশী হারে কার্বনডাইঅক্সাইড শোষন করে জলবায়ূ পরিবর্তন কমায় অথচ প্রকৃতির প্রতি আমাদের আচরণ বিমাতাসুলভ আমাদের বেঁচে থাকার প্রয়োজনেই সমুদ্রকে রক্ষা করা দরকার২০২০ সালে বিশ্বব্যাংকের তথ্যানুসারে,প্লাস্টিক দূষনের দিক থেকে গঙ্গা, পদ্মা, যমুনা যৌথভাবে বিশ্বের দ্বিতীয় দূষিত অববাহিকা হিসাবে চিহ্নিত হয়েছিল কিছু কিছু ভাল সংবাদ আশা যোগায় যদিও তা সমুদ্রে বালু কনার ন্যায়,তবুওতো আলো দেখাচ্ছে তাঞ্জানিয়াএকবার ব্যবহার যোগ্যপ্লাস্টিক ব্যবহার বন্ধ করেছে জার্মানি ঘোষণা করেছে ২০২১ সাল নাগাদ তারাওসিঙ্গেল ইউজপ্লাস্টিক ব্যবহার বন্ধ করবে পলিথিন এবং প্লাস্টিক বর্জ্য উৎপাদনে বাংলাদেশের অবস্থান দশম আমাদেরকেও পলিথিন প্লাস্টিকের ব্যবহার কমিয়ে এনে একসময় বন্ধ করার ব্যবস্থা নিতে হবে পরিবর্তন সম্ভব, তবে সেটা আজই শুরু করতে হবে আমদানিকারক, উৎপাদনকারি, ব্যবহারকারী, আইনপ্রয়োগকারী সকলের সমন্বয়ে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে ধরনীকে রক্ষায় এগিয়ে আসতে হবে
যত দ্রুত হয় ততই মঙ্গল

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
আমাদের চ্যানেল ৩৬৫ ফেসবুক লাইক পেজ