৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

বঙ্গবন্ধু সেতুর পাশেই ডাবল লাইনের রেলসেতু হবে

আপডেট: জানুয়ারি ২২, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, বঙ্গবন্ধু সেতুর ৩০০ গজ উত্তরে রেলের জন্য ডাবল লাইনের একটি সেতু নির্মাণ করা হবে। জাপানি অর্থায়নে খুব শিগগিরই এই সেতু নির্মাণের বিষয়টি চূড়ান্ত করা হবে।

মঙ্গলবার দুপুরে নীলফামারীর সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানা পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব গ্রহণের পর নূরুল ইসলাম সুজন সরকারি সফরে এই প্রথম উত্তরবঙ্গে সৈয়দপুর রেল কারখানা পরিদর্শনে যান।

তিনি বলেন, রেলের জায়গা রেলকে ফেরত দিয়ে সহযোগিতা করুন। এখন মানুষের সামর্থ্য হয়েছে তাই আর বিনা টিকিটে রেলে ভ্রমণ করবেন না। রেলকে পর্যায়ক্রমে মানুষের আকাঙ্ক্ষা পূরণের বাহন হিসেবে গড়ে তোলা হবে।

রেলমন্ত্রী বলেন, বিএনপির শাসনামলে গোল্ডেন হ্যান্ডশেকের নামে একসঙ্গে ১০ হাজার রেল কর্মচারীকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। বিএনপি হাতে মৃত দেশের রেলকে বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক রেল মন্ত্রণালয় গঠন করে বিগত সাত বছরে রেলের উন্নয়নে প্রায় ৩৯ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে।

তিনি বলেন, টানা তৃতীয়বারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এবার নতুন আঙ্গিকে রেলকে আরও সাজানো হবে। দেশের প্রতিটি এলাকায় আন্তঃনগর ও মেইল ট্রেন সার্ভিস চলবে।

মন্ত্রী বলেন, রেলওয়ের উন্নয়নে সরকার ৪৫টি উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়েছে। এর একটি হল ৪০টি ব্রডগেজ ডিজেল ইলেকট্রিক (ডিই) লোকোমোটিভ (ইঞ্জিন) ক্রয়। এ জন্য ইঞ্জিন সংকট কাটাতে ৪০টি ব্রডগেজ ডিজেল ইলেকট্রিক (ডিই) লোকোমোটিভ (ইঞ্জিন) কিনতে সম্প্রতি চুক্তি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, এসব লোকোমোটিভ সরবরাহ করবে আমেরিকান কোম্পানি মেসার্স প্রোগ্রেসিভ রেল ইউএসএ। এতে সরকারের খরচ হবে ১ হাজার ১২৩ কোটি ৫ লাখ টাকা। এ ছাড়া আরও নতুন কোচ যাত্রী পরিবহনের জন্য সংযুক্ত করা হবে। আমরা ধাপে ধাপে রেলপথগুলো ডবল লাইনে নিয়ে আসব।

তিনি রেলের উন্নয়ন সম্পর্কে বলেন, রেলের উন্নয়নে এখন ৪৮টি প্রকল্প রয়েছে। এর মধ্যে ৪৩টি প্রকল্প রেললাইন স্থাপন, সংস্কার, নতুন লাইন স্থাপনের সম্ভাব্যতা যাচাই সংক্রান্ত। বাকি পাঁচটি প্রকল্পে ইঞ্জিন কেনাসহ অন্যান্য উন্নয়নকাজ অন্তর্ভুক্ত বলে তিনি জানান।

এ সময় বাংলাদেশ রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (রোলিং স্টক) সামসুজ্জামান, বিভাগীয় রেলওয়ে মহাব্যবস্থাপক (পূর্ব) খন্দকার শহিদুল হক, সংসদ সদস্য আদেলুর রহমান আদেল, জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরিন, পুলিশ সুপার আশরাফ হোসেনসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, পঞ্চগড়-১ (বোদা-দেবীগঞ্জ) আসনের একাধারে টানা তৃতীয়বারের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম সুজন মঙ্গলবার রেলমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর ৫ দিনের সফরে উত্তরবঙ্গে আসেন। তিনি সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানা পরিদর্শনের পাশাপাশি ওই ৫ দিনে এ অঞ্চলের বিভিন্ন রেলস্টেশন পরিদর্শন ও সমস্যা সমাধানের বিষয়ে মতবিনিময় সভায় অংশ নেবেন।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
আমাদের চ্যানেল ৩৬৫ ফেসবুক লাইক পেজ