৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

নিরপরাধ ব্যক্তির কারাবাস, দুদক মহাপরিচালকসহ ৪ জনকে হাইকোর্টের তলব

আপডেট: জানুয়ারি ২৮, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) এক মামলায় নিরপরাধ ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে কারাগারে নেওয়ার ঘটনায় দুদক মহাপরিচালকসহ ৪ জনকে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

সোমবার বিচারপতি নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ স্ব-প্রণোদিত (সুয়োমুটো) হয়ে এ আদেশ দেন।

আদেশে আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি দুদকের মহাপরিচালক (আইন) মইনুল ইসলাম, মামলার বাদী, আইন সচিবের প্রতিনিধি ও স্বরাষ্ট্র সচিবের প্রতিনিধিকে আদালতে স্ব-শরীরে উপস্থিত হয়ে ভুল ব্যক্তিকে গ্রেফতারের কারণ ব্যাখ্যা করতে বলা হয়েছে।

টাকা আত্মসাতের অভিযোগসহ ৩৩ মামলায় ভুল একজন আসামিকে তিন বছর কারাগারে রাখা এবং তাকে কেন মুক্তি দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুলও জারি করে আদালত।

সোমবার একটি জাতীয় দৈনিকে সোনালী ব্যাংকের প্রায় সাড়ে ১৮ কোটি টাকা জালিয়াতির ৩৩টি মামলায় নিরপরাধ পাটকল শ্রমিক জাহালম এর জেলখাটা নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এ প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, আবু সালেকের বিরুদ্ধে সোনালী ব্যাংকের প্রায় সাড়ে ১৮ কোটি টাকা জালিয়াতির ৩৩টি মামলা হয়েছে। কিন্তু আবু সালেকের বদলে জেল খাটছেন ও আদালতে হাজিরা দিয়ে চলেছেন জাহালম।

দুদকের চিঠিতে বলা হয়েছিল, ভুয়া ভাউচার তৈরি করে সোনালী ব্যাংকের ১৮ কোটি ৪৭ লাখ টাকা আত্মসাৎ করা হয়েছে। এই জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত আবু সালেক নামের এক লোক, যাঁর সোনালী ব্যাংক ক্যান্টনমেন্ট শাখায় হিসাব রয়েছে।

আবু সালেকের ১০টি ব্যাংক অ্যাকাউন্টের ভুয়া ঠিকানাগুলোর একটিতেও জাহালমের গ্রামের বাড়ির কথা নেই। রয়েছে পাশের আরেকটি গ্রামের একটি ভুয়া ঠিকানা। কিন্তু সেটাই কাল হয়ে দাঁড়াল জাহালমের জীবনে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
আমাদের চ্যানেল ৩৬৫ ফেসবুক লাইক পেজ