৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

কলেজের কক্ষে ঢুকে শ্লীলতাহানি এবং মারধর , অতঃপর.

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ৫, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বরগুনার পাথরঘাটা কলেজের অনার্সের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীর বিয়ে হয়েছে সেই মারধর করা প্রেমিক পার্থ রায়ের সঙ্গে। সোমবার রাতে পাথরঘাটা কেন্দ্রীয় মন্দিরে ওই মেয়ের বিয়ে হয়।

এর আগে সোমবার পাথরঘাটা কলেজের অনার্স ভবনের একটি কক্ষে সকাল ১০টার দিকে নিয়ে জোরপূর্বক শ্লীলতাহানি এবং মারধর করার অভিযোগে পার্থ রায়কে (২১) আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

পরে স্থানীয় পর্যায় অভিভাবকদের নিয়ে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করা হয়।

সোমবার বিকালে পাথরঘাটা উপজেলা হিন্দু, বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি অরুণ কর্মকারের নেতৃত্বে পাথরঘাটা থানা থেকে শিক্ষার্থী ও পার্থ রায়কে নিয়ে আসেন। পরে পাথরঘাটা কেন্দ্রীয় রাধা গোবিন্দ মন্দিরে বসে বিয়ে সম্পন্ন হয়।

জানা গেছে, প্রথমে মেয়ের বাবা রাজি না হলেও পরে বিয়েতে রাজি করানো হয়।

অরুণ কর্মকার জানান, (পার্থ ও তমার) দুজনে মধ্যে আগে থেকেই প্রেমের সম্পর্ক ছিল। উভয়পক্ষের অভিভাবকদের সম্মতিতে তাদের বিয়ে দেয়া হয়েছে।

এ ব্যপারে পাথরঘাটা থানার ওসি মো. হানিফ শিকদার বলেন, বিষয়টি অভিভাবক পর্যায়ে সমাধান হয়ে গেছে। মেয়ে কোনো লিখিত অভিযোগ দেয়নি।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
আমাদের চ্যানেল ৩৬৫ ফেসবুক লাইক পেজ