২রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

মুসলিম জাহানের সুখ, শান্তি, সমৃদ্ধি, আল্লাহর রহমত ও মাগফিরাত কামনা করে করা আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো ৫৪তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব।

শনিবার সকাল ১০টা ৪২ মিনিটে শুরু হওয়া আখেরি মোনাজাত শেষ হয় বেলা ১১টা ৬ মিনিটে।

আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন কাকরাইল মসজিদের ইমাম হযরত মাওলানা মুহাম্মদ জোবায়ের। আরবি ও বাংলা ভাষায় মোনাজাত পরিচালনা করেন তিনি। এ সময় ‘আমিন, আল্লাহুম্মা আমিন’ ধ্বনিতে ইজতেমাস্থলের আকাশ-বাতাস মুখরিত হয়ে ওঠে।

মোনাজাতে মাওলানা জোবায়ের প্রথম ১৩ মিনিট পবিত্র কোরআনে বর্ণিত দোয়ার আয়াতগুলো উচ্চারণ করেন। শেষ ১১ মিনিট দোয়া করেন বাংলা ভাষায়। মোনাজাতটি বিভিন্ন স্যাটেলাইট টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।

এদিকে আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে টঙ্গী, গাজীপুর, উত্তরাসহ চারপাশের এলাকার সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কলকারখানা, মার্কেট, বিপণি বিতান, অফিসসহ সবকিছু বন্ধ রাখা হয়।

মোনাজাতে অংশ নিতে সকালে থেকেই ঢাকার চারপাশের বিভিন্ন স্থান থেকে লাখ লাখ মুসল্লি পায়ে হেঁটেই টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমাস্থলে পৌঁছান। সকাল ৯টার আগেই ইজতেমা মাঠ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। মাঠে স্থান না পেয়ে মুসল্লিরা মাঠের আশপাশের রাস্তা, অলি-গলি, বিভিন্ন ভবনের ছাদে অবস্থান নেন।

মোনাজাতে যা বলা হয়: মাওলানা জোবায়ের মোনাজাতে বলেন, হে আল্লাহ আমাদের ইমানকে আরো মজবুত করে দেন। হে আল্লাহ আমাদের আপনার বান্দা হিসেবে কবুল করে নেন। জিন্দেগিতে আমাদের যতো পাপ আছে তার সব মাফ করে দেন। সারা বিশ্বের মুসলমানদের আপনি শান্তি কবুল করে দেন। জিন্দেগি থেকে নফরমানি দূর করে দেন।

মোনাজাতে আরও বলা হয়, হে আল্লাহ তুমি তো ক্ষমাশীল, তোমার কাছেই তো আমরা ক্ষমা চাইব। দ্বীনের ওপর আমাদের চলা সহজ করে দাও। হে আল্লাহ, তুমি আমাদের ওপর সন্তুষ্ট হয়ে যাও। আমরা যেন তোমার সন্তুষ্টি মাফিক চলতে পারি সে তওফিক দাও। দুনিয়ার সব বালা-মুসিবত থেকে আমাদের হেফাজত করো। নবীওয়ালা জিন্দেগি আমাদের নসিব করো।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
আমাদের চ্যানেল ৩৬৫ ফেসবুক লাইক পেজ