৩০শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

টকশোতে সৌদি যুবরাজকে বিয়ের প্রস্তাব দিলেন ইসরাইলি নারী

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানকে বিয়ে করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন ইসরাইলি এক নারী।

নি’মাহ নামের ইসরাইলি এই নারী রাজনীতিবিদ দেশটির টিভি চ্যানেল ‘নিউজ টোয়েন্টিফোর আই’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে নিজের এ আগ্রহের কথা জানান।

আল-জাজিরার সংবাদে বলা হয়েছে, সৌদি আরব ও ইসরাইলের মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে আরও উন্নত করার জন্য নি’মাহ বিন সালমানের প্রতি একটি খোলা চিঠিও লিখেছেন। চিঠিতে তিনি যুবরাজকে ‘এমবিএস’ সম্বোধন করে তার দেশ ইসরাইলের প্রতি সমর্থন জানানোর আহ্বান করেছেন।

লক্ষণীয় ব্যাপার হলো,২০১৭ সালে মোহাম্মদ বিন সালমান ক্রাউন প্রিন্স নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে উভয় দেশের মধ্যে বেশ উষ্ণ সম্পর্ক তৈরি হয়েছে। এরই মধ্যে বিন সালমানকে এই নারীর বিয়ের আগ্রহের কথা খুব চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে।

ইসরাইলের সঙ্গে ‘নতুন সম্পর্ক’ করতে চায় সৌদি আরব

সৌদি ও ইসরাইলের সম্পর্ক উন্নয়নের জন্য উভয় দেশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মাঝে গোপন যোগাযোগ হয়েছে বলে দাবি করেছে সৌদি আরবেরই উচ্চপর্যায়ের কিছু সূত্র। যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমানের শাসনামলে দুদেশের সম্পর্ক কল্পনাতীত অগ্রসর হলেও এই সম্পর্ককে চূড়ান্ত পর্যায়ে নিতে চায় রিয়াদ।

ইসরাইলের হিব্রু চ্যানেল ১৩ গত ১২ ফ্রেব্রুয়ারি সৌদি-ইসরাইল গোপন সম্পর্কের ব্যাপারে দীর্ঘ প্রতিবেদন পেশ করে বলেছে, সৌদি ও ইসরাইল প্রচণ্ড আরব ঝড়ের মুখে দুজন একই নৌকার আরোহীর মতো।সূত্রটি বলছে, উভয় দেশের সম্পর্ক এই পর্যায়ে উন্নীত হয়েছে যে, সৌদি-ইসরাইল কর্মকর্তাদের মাঝে সাপ্তাহিক বৈঠক হচ্ছে আরব ও আরবের বাইরের বিভিন্ন রাজধানীতে। এতে মধ্যস্থতা করছে ওয়াশিংটন ও অন্যান্যা দেশের কর্মকর্তারা।

২০১৭ সালে যখন মোহাম্মাদ বিন সালমান ক্ষমতায় আসে তখন থেকে সৌদি-ইসরাইল সম্পর্ক উন্নতির দিকে যায়। গত বছর ডিসেম্বরে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানায়, মোহাম্মাদ বিন সালমান এই সম্পর্কের প্রতি জনসমর্থন আদায় করার জন্য কিছু লেখক-সাংবাদিক নিয়োগ দিয়েছে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
আমাদের চ্যানেল ৩৬৫ ফেসবুক লাইক পেজ