২৪শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার

আসামের নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদ পড়া কেউ বাংলাদেশি নন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট: আগস্ট ৩১, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন বলেছেন, আসামের নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদ পড়া কেউ বাংলাদেশি নন। তিনি শনিবার ভারতের নিউজ চ্যানেল টাইমস নাউকে দেয়া সাক্ষাৎকারে একথা বলেছেন। ভারতের সর্বশেষ প্রকাশিত নাগরিকপঞ্জি থেকে ১৯ লাখ ৭০ হাজার বাদ পড়েছেন।

মোমেন তার প্রতিক্রিয়ায় জানান, ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুব্রামনিয়াম জয়শঙ্কর তাকে বলেছেন যে, এ বিষয়টি সম্পূর্ণভাবে ভারতের অভ্যন্তরীণ একটি বিষয়। এ নিয়ে বাংলাদেশের উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। কোনো পরিস্থিতিতেই বাংলাদেশে তার প্রভাব পড়বে না।

নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদ পড়া লোকেরা বাংলাদেশি কিনা জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন বলেন, ‘আমি এটা মনে করি না। যদি কোনো বাংলাদেশি থেকেও থাকেন তারা ১৯৪৭ সালের কিংবা ১৯৭১ সালের পূর্বে সেখানে গেছেন। ফলে তারা বছরের পর বছর ধরে সেখানে বাস করছেন। আমি তাদের বাংলাদেশি বলে মনে করি না।’

মোমেন বলেন, বাংলাদেশিদের ভারতে যাওয়ার কোনো কারণ নেই। বাংলাদেশ অনেক ভালো করছে। ফলে কোনো বাংলাদেশির ভারতে যাওয়ার আগ্রহ নেই। বাংলাদেশে জীবনযাত্রার ব্যয়ের চেয়ে মাথাপিছু আয় অনেক বেশি। ফলে বাংলাদেশিদের ভারতে যাওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই।

ঢাকার কূটনৈতিক বিশ্লেষকরাও মনে করেন, বিষয়টি পুরোপুরি ভারতের অভ্যন্তরীণ। এ নিয়ে বাংলাদেশের উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই।

জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন শনিবার যুগান্তরকে বলেন, ‘নাগরিকপঞ্জিতে প্রথমে বলা হয়েছিল ৮০ লাখ তালিকার বাইরে আছে। তারপর তা কমে ৪২ লাখ হয়েছিল। এখন দেখা যাচ্ছে ১৯ লাখ। ফলে তালিকার বাইরে থাকা লোকের সংখ্যা কমে আসছে। এটা ইতিবাচক দিক। আমাদের আশা থাকবে তালিকায় তা শূন্যে নেমে আসবে।’

অধ্যাপক দেলোয়ার আরও বলেন, ‘পুরো বিষয়টা এখনও চলমান। বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের জায়গায় আসেনি। বরং ভারতের অভ্যন্তরে কংগ্রেস, তৃণমূল কংগ্রেস, বাম দলগুলো নাগরিকপঞ্জি করার বিরোধিতা করছে। ফলে বিষয়টা ভারতের অভ্যন্তরীণ। এ নিয়ে আমাদের উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। তবে পুরো বিষয়টা আমাদের পর্যবেক্ষণ করতে হবে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
আমাদের চ্যানেল ৩৬৫ ফেসবুক লাইক পেজ