২১শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

এবার জাবি ভিসির পদত্যাগ দাবি

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

চলমান দুর্নীতি ইস্যুতে এবার জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসি অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের পদত্যাগ দাবি করেছে‘বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ’। রোববার সংগঠনটির পক্ষ থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জাবি ভিসিকে ‘অর্থলোলুপ’ আখ্যায়িত করে শিগগিরই পদত্যাগ করার আহ্বান জানানো হয।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়,‘জাবি ভিসি শাখা ছাত্রলীগকে ১ কোটি ৬০ লাখ টাকা দিয়েছেন’বলে মন্তব্য করেছেন ছাত্রলীগ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ক্ষমা চেয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের ‘খোলা চিঠি’তে ভিসির দুর্নীতির যে বয়ান দিয়েছেন তা নিশ্চিত বিশ্বাসের জন্ম দিয়েছে জাবি ভিসি দুর্নীতিগ্রস্থ।’

এমতাবস্থায় ‘দুর্নীতিগ্রস্থ’ ও ‘অর্থলোলুপ’ এই ভিসির স্বপদে থাকার নৈতিক অধিকার নেই বলে দাবি করেন তারা।
বিবৃতিতে তারা আরো বলেন,‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে বিশ্ববিদ্যালয়ে চলমান আন্দোলনের যৌক্তিকতা প্রমাণিত হয়েছে। ভিসি ও তার পরিবারের দুর্নীতির নানা খবর কারো কাছে অজানা নয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের অসম্মান করা,হেয় করে রুচিবহির্ভূত ও কাণ্ডজ্ঞানহীন মন্তব্য করা এবং ভিসি পরিবারের সদস্যরা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করা,জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের লেডিস ক্লাবের সভানেত্রী হিসেবে ভিসির স্বামীকে দায়িত্ব দেয়া। লেডিস ক্লাবের অবকাঠামোগত উন্নয়নের কাজে নীতি ভঙ্গ করে অর্থ লুটপাট ইত্যাদি সংবাদ জনমনে ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে।’

এদিকে ভিসি বিরোধী এই অংশের বিবৃতিকে প্রত্যাখ্যান করে আলাদা বিবৃতি দিয়ে প্রতিবাদ করেছে ভিসিপন্থী ‘বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পরিষদ’। বিবৃতিতে তারা বলেন,‘দুর্নীতির অভিযোগ প্রমাণ করুক,স্বাক্ষর সংবলিত প্রচারপত্র বিলি করুন অথবা ষড়যন্ত্র পরিহার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নে সহায়তা করুন। অন্যথায় ভিসি ও তার পরিবারের ভাবমূর্তি ও সুনাম ক্ষুন্ন করারা দায়ে মানহানি মামলা করা হবে।’

এছাড়া বলা হয়,‘প্রচারকারীরা স্বার্থান্বেষী।এতদিন তারা আড়ালে থেকে সুযোগের অপেক্ষায় ছিলেন।এখন কল্পিত অভিযোগ করে ভিসিকে সরিয়ে দেয়াই তাদের প্রধান লক্ষ্য।’

এদিকে জাবিতে উন্নয়ন প্রকল্পের বরাদ্দকৃত টাকা থেকে দুই কোটি টাকা ছাত্রলীগকে প্রদানের করার অভিযোগের বিষয়ে তদন্তের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সামনে থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে মুরাদ চত্বরে এসে শেষ হয়।মিছিল শেষে সমাবেশে বক্তারা এসপ্তাহের বুধবারের মধ্যে ভিসির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্তের দাবি মেনে নিতে বলেন। অন্যথায় আন্দোলনের মাধ্যমে তাকে দুর্নীতি তদন্তের প্রদক্ষেপ নিতে বাধ্য করা হবে বলে জানায় আন্দোলনকারীরা।

এসময় ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কামিটির বাদ পরা সভাপতি শোভন ও সাধারণ কমিটি রাব্বানী জাবি ভিসির কাছে চাঁদা দাবি করেছিলেন এ কথা ভিসি কেন এতদিন গোপন রেখেছিলেন এর ব্যাখ্যা জানতে চেয়েছেন আন্দোলনের সংগঠক রাকিবুল রনি।বক্তব্যে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ জাবি শাখার মুখপাত্র খান মুনতাসির আরমান বলেন, ‘জাহাঙ্গীরনগরের এই দুর্নীতির করাল গ্রাস দেশের সবাইকে ছুঁয়ে গেছে। দুর্নীতির খবর সবার সামনে আজ উন্মুক্ত। ছাত্রলীগ আপনার কাছে টাকা চেয়েছে আপনি কেন এতদিন এই খবর প্রকাশ করেন নাই। আপনাকে বহিরাগত কেউ টাকার জন্য চাপ দিলো তবু আপনি কোনো অভিযোগ করেননি। এতে বোঝা যায়,আপনি নিজেও একজন দুর্নীতিবাজ। তাই আমরা এই দুর্নীতির সুষ্ঠু তদন্ত চাই। এসময় অন্য বক্তারা বলেন,‘ভিসি কোনো তদন্তের দিকে না গিয়ে নিজেকে নির্দোষ দাবি করছেন।

তিনি(ভিসি) একবার বলছেন শোভন-রাব্বানী পাসের্ন্টিজ চেয়েছে আবার কালকে বলছেন কোনো টাকা লেনদেন করেননি,আমরা এধরণের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানাচ্ছি।যদি পারে,ভিসি নিজেকে গ্রহনযোগ্য তদন্তসাপেক্ষে নির্দোষ প্রমাণ করতে হবে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
আমাদের চ্যানেল ৩৬৫ ফেসবুক লাইক পেজ